সাপ্তাহিক অনলাইন সাহিত্য ম্যাগাজিন

বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন। ইমেইল - netphoring@gmail.com ফোন - 7908076073

শুক্রবার, ৮ মার্চ, ২০১৯

আলোর পথে



আলোর পথে
ঋষিব্রত গোস্বামী

কাশীপুর গ্রামগ্রামের মেয়ে মালিনীসকাল থেকে বিকেল চলে তার সংসারের সংগ্রামসকালে উঠে বাবা মায়ের সেবাতারপর ভাই-বোনেদের স্কুলে পাঠানোর জন্য দৌড়াদৌড়িএকেবারে হুলুস্থুল কান্ডবাবার ভাগচাষ অনিয়মিতমায়ের মণিবের বাড়িতে বেতন স্বল্পএইভাবে পাঁচ পাঁচটা পেট চলা দায় তার উপর  আবার তিন ছেলে মেয়ের পড়াশুনাবাধ্য হয়েই সংসারের দায়িত্ব কাঁধে নেয় বছর ২০ এর মালিনীনিত্যদিনের সংসারের কাজ শেষ করে মালিনী চলল নিজের কাজেঅন্ধকার জগতের একটি সর্বনাশের পাতা নিত্যদিনের মত খুলে গেল
আজ যে বাবু ডেকেছে সে ৫০০০ টাকা দেবেএই টাকাটা দিয়ে প্রথমে বাবার ওষুধ তারপর ভাই-বোনের বই তারপর তাদের স্কুলের মাইনা এসব শেষ করে যা থাকবে তা ভবিষ্যতের জন্য গচ্ছিত থাকবেনিজের স্বাদ-আহ্লাদের চিন্তা কবেই জ্বলে পুড়ে ছাই হয়ে গেছেনিজেকে যখন চোখের সামনে অপবিত্র করে দেয় কামুকেরা তখন নিজের অসহায় সংসারের কথা ভেবে  চোখ বুজে মুখ বুজে সব মেনে নেয় সে দেখা যাক আজ কি অপেক্ষা করছে তার জন্যতবে দেখে মনে হচ্ছে অন্য কিছুর ধান্দায় আছেকী সেই ধান্দা?
আজ যে ডেকেছে সে বিশাল কোটিপতি ব্যাবসায়ীর ছেলেআসার পর থেকেই কী সৌজন্য শুরু করেছে সে বাড়ি কোথায়,কে কে আছে আরে বাবা কেমন  ভদ্রলোক বোঝাই তো যাচ্ছে এত সৌজন্যের কী আছে রে বাবা?যে কাজ করবি কর,টাকা দে,তারপর কাজ আছে অনেকমনে মনে গুমড়াতে থাকে মালিনীকিছুক্ষন পরে ছেলেটি মালিনীর হাত ধরে নিয়ে গেল একটা ঘরেমনে মনে অন্ধকারাচ্ছন্ন মুহুর্তের জন্য প্রস্তুত হল মালিনীকিন্তু  কী এখানে তো খাট বিছানা নেই তো একটা চেম্বারনিজের চোখ কে বিশ্বাস করতে পারছে না সেতার একটা চাকুরি হয়ে গেলযে সেটা সততার সাথে করতে পারবে
কথা বার্তা তেই আভাস পেল সে যে তার একটা চাকুরি হয়ে গেল কাল থেকেই কাজ শুরুফের হাত ধরে টেনে নিয়ে বাইরে এল সেই ছেলেমালিনী তখন স্রদ্ধায় মাথা নীচু হয়ে যাচ্ছে মালিনীর"কী ৫০০০ টাকার থেকে বেশী হল তো?"ছেলেটির প্রস্নে মালিনী আর কিছু বলতে পারল না শুধু কাঁদতে লাগলচোখের জল মোছাতে মোছাতে ছেলেটি বলতে লাগল"বোনটিআজ থেকে কান্নার দিন শেষতোমরা মায়েদের রূপবুঝি এইরকম পরিস্থিতি হয়তো কখন কখন আসে যখন খুব অসহায় হয়ে এসব কাজ করকিনতু তোমরা ভাব তো নারী যদি ধৈর্য্য হারিয়ে অপবিত্র পথে পা বাড়ায় তবে সৃষ্টি যে রসাতলে চলে যাবে বোন আমি কদিন হল বিদেশ থেকে ফিরলাম বিজনেসের দায়িত্ব নেওয়ার আগে চেয়েছিলাম একটা ভালো কাজ করতে অন্তত মানুষের জন্যতোমাদের গ্রামে আমার বন্ধুদের কাছ থেকে তোমার অসহায় অবস্থার কথা শুনিবাবাকে বলিতারপর এই সিদ্ধান্ত"মালিনী শুধু ভাবতে লাগল এখন একটাই কথা যে নারী সম্বন্ধে উনি যে সম্মানজনক কথা বললেনতা নিজে নারী হয়েও কোনওদিন বুঝতে পারল নাহয়তো বুঝতোও না যদি এই বাবু এক অন্ধকারে ডুবন্ত নৌকাকে এভাবে ভাসিয়ে না তুলতো


Share:

0 comments:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

তারিখ হিসেবে ডাউনলোড করুন

CATEGORIES